লক্ষ্মীপুরে জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় হানিফ বললেন ভারতের সাথে আমাদের রক্তের সম্পর্ক

0
30

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, ভারতের সাথে আমাদের আত্মার শুধু নয় রক্তের সম্পর্ক। আমাদের প্রিয়ত প্রতিবেশি। তাদের সাথে আমাদের সম্পর্ক নষ্ট করার কোন প্রয়োজন নেই। সমস্যা থাকতে পারে, আলোচনার মাধ্যমে সমাধান হবে। কিন্তু একটি দেশের প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রিয় সফরে আসবে অতিথি হিসেবে তার বিরুদ্ধে কটুক্তি করা তাকে আসতে দেয়া হবে না এটা কোন শিষ্টাচারের মধ্যে পড়ে না। এটা কোন রাজনীতির মধ্যে পড়ে না।মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) দুপুরে লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন। শহরের ওয়েলকাম চাইনিজ রেস্টুরেন্ট মিলনায়তনে জেলা আওয়ামী লীগ এ আয়োজন করেন। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আসার কথা। পাকিস্তানের প্রেতাত্মারা হঠাৎ নতুন করে সুর তুলছে- তারা নাকি নরেন্দ্র মোদিকে আসতে দিতে চায় না। আপনারা সিদ্ধান্ত নেওয়ার কে ? রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে যিনি আসবেন, দেশের প্রত্যেকটি মানুষের দায়িত্ব তাকে সম্মান করা। পৃথিবীর সকল রাষ্ট্রের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলতে নীতি হিসেবে জাতির পিতা ঘোষণা করে গেছেন। এজন্য সকল দেশের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ন সম্পর্ক গড়ে তোলা আমাদের দায়িত্ব। তবে কোন দেশের সঙ্গে সমস্যা থাকলে তা দ্বিপাক্ষিক সিদ্ধান্তে সমাধান করা হবে।জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়নের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলি, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হারুনুর রশিদ।এসময় উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, আওয়ামী লীগ নেতা এমএ তাহের, এম আলাউদ্দিন, সফিকুল ইসলাম, মিজানুর রহিম, একেএম নুরুল আমিন, সফিক মাহমুদ পিন্টু, মামুনুর রশিদ, ইসমাইল খোকন, কাজী জামশেদ কবির বাকি বিল্লাহ, আবুল কাশেম চৌধুরী, ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ও একেএম সালাহ উদ্দিন টিপুসহ বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতারা। ১১ এপ্রিল লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে নৌকার প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন। তার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বি করবেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য ফায়িজ উল্যাহ শিপন ও বাংলাদেশ কংগ্রেসের ঢাকা মহানগরের আহবায়ক আবুল কালাম আজাদ।

আপনার মন্তব্য জানান